Select Page

ডিরেক্টরি সাবমিশন টিউটোরিয়ালনেটে হাজার হাজার সাইট আছে যেখানে শুধু বিভিন্ন ওয়েবসাইটের ঠিকানা দেয়া থাকে। অনেক সাইট আছে যেখানে কোটি কোটি সাইটের ঠিকানা আছে। সাইটের লিংক বা ঠিকানাগুলি বিভাগভিত্তিক সাজানো থাকে। যেমন সোসাল নেটওয়ার্কিং নামে যদি একটা বিভাগ থাকে তাহলে সেখানে ফেসবুক,টুইটার সহ সব সোসাল নেটওয়ার্কিং সাইটের ঠিকানা থাকবে। খেলা বিভাগ থাকলে সেখানে খেলাধুলা বিষয়ক সাইটগুলির লিংক থাকবে। এভাবে অনেক বিভাগ থাকে এবং প্রতি বিভাগে  সংশ্লিষ্ট সাইটগুলির তালিকা থাকে। এতে করে সাইট খুজে পেতে সুবিধা হয়, ধরুন কেউ ওয়েব ডিজাইন বা ডেভেলপমেন্ট এর টিউটোরিয়াল আছে এমন সাইট খুজছে,এখন সে যদি এ ধরনের সাইটের তালিকা সংরক্ষন করে এরুপ সাইটে গিয়ে কম্পিউটার বিভাগে অনুসন্ধান করে তাহলে হয়ত এ ধরনরে অনেক সাইট পেতে পারে। যে সাইটগুলি এরুপ হাজার হাজার সাইটের ঠিকানা বিভাগ ভিত্তিক সাজিয়ে রাখে সেই সাইটগুলিকে বলে ডিরেক্টরি সাইট। আর এরুপ সাইটে আপনার সাইটের লিংক প্রদান করার প্রক্রিয়াটিকে বলে ডিরেক্টরি সাবমিশন। এধরনের অনেক ডিরেক্টরি সাইট আছে যারা বিনামুল্যে আপনার সাইটের লিংক সংশ্লিষ্ট বিভাগে যোগ করতে দেবে। এখনতো যার যে ধরনের সাইটের দরকার হয় সে ধরনের দুএকটা শব্দ গুগলে লিখে এন্টার দিলেই ঐ ধরনের সাইটগুলি চলে আসে।কিন্তু সার্চ ইন্জিন তৈরীর আগে মানুষ এসব ডিরেক্টরি সাইট থেকেই নিজের প্রয়োজনীয় সাইট খুজে নিত। এখনও যারা নতুন নতুন কম্পিউটার জগতে আসে, ইন্টারনেট কানেকশন নেয় তারা এভাবে সাইট খুজে পেতে চেষ্টা করে। যাই হোক কাজ হচ্ছে বিভিন্ন ডিরক্টেরি সাইটে আপনার সাইটর লিংক সাবমিট করা। এতে করে যারা ডিরেক্টরি সাইটের মাধ্যমে ওয়েবসাইট খোজে তারা আপনার সাইটের খবর পাবে এবং আপনার সাইটের ট্রাফিক বাড়বে।

বাংলাদেশী ডিরেক্টরি সাইট www.velki.com, www.bangladeshdir.com, www.abohomanbangla.com,

দেশের বাইরে http://www.bizseo.com/, http://www.directorysnob.com, www.connectdirectory.info, www.dmoz.org,  (এটা খুব বিখ্যাত), www.dctry.info, didb.org,  directory.fm,  www.directorybright.info, www.directorycom.info,

গুগল পেজ রেঙ্কঃ ওয়েবে একটা পেজ কত গুরত্বপূর্ন এবং এটার যথাযথ কর্তৃপক্ষ আছে কিনা, এবিষয়গুলির উপর ভিত্তি করে গুগল পেজ র‌্যাংক দেয়। সংক্ষেপে পেজ র‌্যাংক হচ্ছে একটা পেজের জন্য ভোট, যে ভোট দিবে ওয়েবে থাকা অন্য পেজগুলি। *পেজর‌্যাংক প্রকাশের জন্য ০ থেকে ১০ পর্যন্ত সংখ্যা ব্যবহার করা হয়। *কোন সাইটের (পেজের)পেজর‌্যাংক ১০ হলে বুঝতে হবে সেই সাইটকে গুগল সর্বোচ্চ গুরত্ব দিচ্ছে। *পেজর‌্যাংক গুগল ৩/৪ মাস পরপর বিবেচনা করে অর্থ্যাৎ ৩/৪ মাস পরপর একটা সাইটের পেজর‌্যাংক পরিবর্তন হয়। *ফেসবুকের বর্তমান পেজর‌্যাংক ১০,ইত্তেফাক এর ওয়েবসাইটের পেজর‌্যাংক ৪, কালের কন্ঠ ওয়েবসাইটের পেজর‌্যাংক ৪, ইয়াহুর পেজর‌্যাংক ৯ *বিভিন্ন সাইট আছে যেখানে যেকোন সাইটের URL  টাইপ করে এন্টার দিলেই পেজর‌্যাংক দেখাবে (http://www.prchecker.info/check_page_rank.php),এছাড়া www.toolbar.google.com থেকে গুগল টুলবার ডাউনলোড করে ব্রাউজারে এনাবল রাখতে পারেন। গুগল টুলবারে একটা সাদাখন্ড আছে যেখানে সবুজ কালি এবং সংখ্যা দিয়ে পেজর‌্যাংক দেখায়। * .gov এবং .edu এ সাইটগুলি গুগলের কাছে খুব গুরত্বপূর্ন,এসব সাইটে লিংক নিতে পারলে এটা আপনার সাইটের জন্য প্লাস পয়েন্ট। * “nofollow”  সাইটে লিংক দিলে গুগল এটা গগনা করেনা। একটা ওয়েব পেজে যদি অন্য আরেকটা ওয়েব পেজের লিংক থাকে তাহলে অন্য এই পেজটির জন্য এটা একটা ভোট। আরও সহজভাবে বলি w3schools.com এ www.dinajpurfreelancerassociation.com এর একটা লিংক থাকে তাহলে www.dinajpurfreelancerassociation.com একটা ভোট পেল। এভাবে www.dinajpurfreelancerassociation.com এই লিংকটা যতগুলি ওয়েবসাইটে থাকবে গুগল সেগুলি বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নিবে www.dinajpurfreelancerassociation.com সাইটটি কত গুরত্বপূর্ন। তবে গুগল সব সাইটের লিংক গগনা করেনা। পেজ র‌্যাংক ০ এরুপ হাজারটা সাইটে আপনার সাইটের হাজারটা লিংক থাকলেও আপনার পেজ র‌্যাংক বাড়বেনা। আর যদি পেজর‌্যাংক ৬ এরুপ কোন একটা সাইটে যদি আপনার সাইটের লিংক থাকে তাহলে একবারে আপনার পেজর‌্যাংক হয়ে যাবে ৫। তবে পেজর‌্যাংক খুব গুরত্বপূর্ন কোন বিষয় নয়। পেজর‌্যাংকের কারনে সার্চ ইন্জিন রেজাল্ট পেজে (SERP) কোন প্রভাব পরেনা। পেজর‌্যাংক ০ এমন সাইটও গুগলের প্রথম পেজে থাকতে পারে অপরদিকে বেশি পেজর‌্যাংকওয়ালা কোন সাইট গুগলের প্রথম পেজে নাও থাকতে পারে যদিও ওয়েবসাইটদুটি একই ধরনের এবং একই কিওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করা হয়েছে। তাই আপনার সাইটের পেজর‌্যাংক না পেলে চিন্তিত হবার কোন কারন নেই। এমন অনেক সাইট আছে যাদের পেজর‌্যাংক অনেক ৩,৪,৫ অথচ এই সাইটগুলি দেখলে আপনি হাসবেন কারন ভিতরে কিছুই নেই শুধু অনেক সাইটে এই সাইটের লিংক আছে। পেজর‌্যাংক নিয়ে গুগলকে মেইল, তাদের ফোরামে লেখালেখিও অনেক হয়েছে। যথাযথ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি এড়িয়ে যায়। এমনকি ২০০৯ সালে গুগল ওয়েবমাস্টার টুল থেকে পেজর‌্যাংক বিষয়টি সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এছাড়া গুগলের পেজর‌্যাংক এর সমীকরনটিতেও যেসব প্যারামিটার আছে তা আসলে ইনকামিং লিংকের উপর ভিত্তি করেই। (অন্য সাইটে আপনার সাইটের লিংক থাকলে সেটা ইনকামিং লিংক) * তবে কোন কোন SEO এক্সপার্ট বলেন যে পেজ র‌্যাংক এর কিছু প্রভাব আছে আর একটা কথা আপনার সাইট যদি বেশি পেজর‌্যাংকওয়ালা হয় আর আপনি যদি এর থেকে কম পেজর‌্যাকওয়ালা সাইটের লিংক আপনার সাইটে দেন তাহলে আপনার পেজ র‌্যাংক কমবে বা সেই সাইটটির সাথে ভাগাভাগি হবে।অর্থ্যাৎ আউটবাউন্ড লিংক দেয়ার সময় সতর্ক থাকতে হবে।

অ্যালেক্সা রেঙ্ক টিউটোরিয়ালঅ্যালেক্সাতে রেজিস্টার করে আপনার সাইটের তথ্য দিলে এরপর থেকে অ্যালেক্সাতে আপনার সাইটের র‌্যাংকিং দেখাবে। অ্যালেক্সার র‌্যাংকিং এ যদি আপনার সাইট ১ম এক লক্ষ সাইটের মধ্যে না থাকে তাহলে অ্যালেক্সা আপনার সাইটের যে র‌্যাংকিং দেখাবে তা সঠিক নয়। ধরুন অ্যালেক্সাতে আপনার সাইটের র‌্যাংকিং দেখাল ২১২২৫৪ নাম্বার তাহলে বুঝতে হবে এটা সঠিক নয় কারন এটা ১০০০০০ এর ভিতরে নেই। ১০০০০০ ভিতরে থাকলে মোটামুটি একটা সঠিক র‌্যাংকিং দিতে পারে।অ্যালেক্সা র‌্যাংকিং আসলে তাদের টুলবার (অ্যালেক্সা টুলবার) যারা ব্যবহার করে তাদের ভিজিটের উপর ভিত্তি করে করা হয়ে থাকে। আপনি একটা ওয়েবসাইট খুললেন লক্ষ লক্ষ ভিজিটরও আপনার সাইট ভিজিট করে কিন্তু যারা ভিজিট করে তাদের কেউ যদি অ্যালেক্সা টুলবার ব্যবহার না করে তাহলে আপনি কোন র‌্যাংকিং পাবেননা, পেলেও হয়ত ৩/৪ লক্ষ হবে আপনার র‌্যাংকিং। অপরদিকে আপনার সাইটের মাত্র যদি কয়েক হাজার ভিজিটর থাকে আর তারা সবাই যদি অ্যালেক্সার টুলবার ব্যবহারকারী হন তাহলে একমাসের মধ্যেই দেখবেন আপনার সাইটের র‌্যাংকিং শতকের ঘরে এসে গেছে। ধরুন আপনার একটা সাইট আছে, দিনে হয়ত কয়েকশবার ভিজিট হয় এবং অ্যালেক্সাতে র‌্যাংকিং মনে করেন দুই লক্ষের ঘরে। এখন আপনি আপনার ১৫/২০ জন বন্ধুকে (যারা নেট ব্যবহার করে)বললেন যে বন্ধু তোরা তোদের ব্রাউজারে দয়া করে অ্যালেক্সা টুলবারটি ইনস্টল করে নে আর প্রতিদিন আমার সাইটে ৮/১০ বার করে ঢুকবি। ব্যস অ্যালেক্সার কেল্লা ফতে (দুর্গ বিজয়)। এবার দেখবেন একমাসেই আপনার র‌্যাংকিং দুইলক্ষ থেকে হয়ত দুই হাজারে চলে আসছে। এজন্য বিভিন্ন পত্র পত্রিকা,বিখ্যাত ব্লগ,ফোরামের অ্যালেক্সা র‌্যাংকিং এত বেশি কারন এসব একেকটা সাইটর পিছনে যদি ১০/১২ জন লোক নিযোগ দেয়া থাকে হতে পারে তারা কনটেন্ট লেখক,ওয়েব ডেভেলপার,ডিজাইনার বা যেকোন কিছু । অর্থ্যাৎ এই সাইট নিয়ে তাদের সবসময় পরে থাকতে হয় এদেরকে বলাই থাকে আপনার সবাই অ্যালেক্সা টুলবার ব্যবহার করবেন। এদেরকে হয়ত দিনে সংশ্লিষ্ট সাইটে দিনে ৬০/৭০ বার ঢুকতে হয়। *টুলবার ছাড়া সাইটে ঢুকলেও অ্যালেক্সা সেটা গগনা করে তাবে সেটার প্রভাব খুব অল্প

*অ্যালেক্সার একটা উইজেট আছে যদি আপনার সেটা আপনার সাইটে দেন তাহলে সেই উইজেটে প্রতি ক্লিকেই একবার করে ভিজিট হয়েছে অ্যালেক্সা ধরবে।(এই উইজেটে আপনার সাইটের র‌্যাংকিং এবং আপনার সাইটের লিংক কয়টি সাইটে আছে সে সম্পর্কে তথ্য থাকবে।